হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট কারণ ছাড়া ব্যান করা হয় না।


তরফ বার্তা প্রকাশের সময় : জুন ২৪, ২০২২, ৩:৫০ অপরাহ্ন /
হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট কারণ ছাড়া ব্যান করা হয় না।

নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগে বিভিন্ন সময় অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করে হোয়াটসঅ্যাপ। জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা সাইটটি এবার ১৪ লাখের বেশি ভারতীয় অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করেছে। এর আগে ২০২১ সালের নভেম্বরে ২২ লাখের বেশি ভারতীয় অ্যাকাউন্ট বন্ধ করেছিল মেটার সাইটটি।

বিভিন্ন মহল থেকে পাওয়া একাধিক অভিযোগ, একাধিক নিয়ম বিরুদ্ধ ঘটনা, নিজস্ব কিছু পদ্ধতি মেনে বিচার করে এই বিপুল সংখ্যায় হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যান করেছে সংস্থাটি। ফেব্রুয়ারি মাসে মোট ৩৩৫টি নির্দিষ্ট অভিযোগ জমা পড়েছিল হোয়্যাটসঅ্যাপের কাছে।

সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, হোয়াটসঅ্যাপের এই ইউজার সেফটি রিপোর্ট তৈরি করা হয় ব্যবহারকারীদের অভিযোগের ভিত্তিতে ও অভিযোগের প্রেক্ষিতে নেওয়া ব্যবস্থার প্রেক্ষিতে। হোয়টাসঅ্যাপে অশ্লীলতা, আক্রমণ রুখতেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়। হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা নিয়ে যে যথেষ্ট ওয়াকিবহাল, সেটি এই কথায় প্রমাণিত হয়।

হোয়াটসঅ্যাপের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তারা প্রায় সব অভিযোগেরই যথাসময়ে উত্তর দিয়েছেন। সেসব অভিযোগ বিচার করেই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি কিছু অভিযোগ ছিল যেগুলো আগেই লিপিবদ্ধ করছিল তারা। কোনো হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট কারণ ছাড়া ব্যান করা হয় না। নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সাধারণত হোয়াটসঅ্যাপে কোনো ভারতীয় অ্যাকাউন্ট চিহ্নিত করা হয় সেই অ্যাকাউন্টের নম্বরের আগে +৯১ আছে কি না সেটা দেখে নিয়ে। সেই হিসাবেই ভারতীয় অ্যাকাউন্টগুলোকে চিহ্নিত করা হয়েছে।