মাধবপুরে ভূল চিকিৎসায় গর্ভবতির মৃত্যু: লাখ টাকায় রফাদফার অভিযোগ


তরফ বার্তা প্রকাশের সময় : জুলাই ১৩, ২০২২, ১০:১৭ অপরাহ্ন /
মাধবপুরে ভূল চিকিৎসায় গর্ভবতির মৃত্যু: লাখ টাকায় রফাদফার অভিযোগ

এ ঘটনায় রোগীর স্বজনরা হাসপাতালে এসে প্রতিবাদ করলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ লাখ টাকার বিনিময়ে গোপনে মৃত্যুর বিষয়টি রফাদফা করেছে বলে একাধিক সুত্র জানিয়েছে।

মোঃএরশাদ আলী, মাধবপুর:: হবিগঞ্জের মাধবপুর সদরে প্রাইম হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে সিজার করতে গিয়ে ডাক্তারের অবহেলায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরন হয়ে এক গর্ভবতীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে স্বজনরা।

এ ঘটনায় রোগীর স্বজনরা হাসপাতালে এসে প্রতিবাদ করলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ লাখ টাকার বিনিময়ে গোপনে মৃত্যুর বিষয়টি রফাদফা করেছে বলে একাধিক সুত্র জানিয়েছে।

রোগীর স্বজনরা জানান, উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের সাহেবনগর গ্রামের হাবিবুর রহমানের স্ত্রী গর্ভবতী খাদিজা আক্তারকে মঙ্গলবার দুপুরে মাধবপুর প্রাইম হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এনে ভর্তি করে। বিকেলে হাসপাতালের আবাসিক ডাক্তার শাহরীন হক খাদিজার সিজার করান। এতে খাদিজার একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। সিজারের পর থেকেই খাদিজার অতিরিক্ত রক্তক্ষরন শুরু হয়। অবস্থা খারাপ দেখে আজ (বুধবার) সকালে খাদিজাকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে প্রেরন করে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক খাদিজা কে মৃত ঘোষনা করেন।

মৃত্যুর ঘটনার খবর পেয়ে বুধবার বিকেলে খাদিজার স্বজনরা হাসপাতালে প্রতিবাদ শুরু করে। এ সময় মাধবপুর থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। এই প্রাইম হাসপাতালের বৈধ কাগজপত্র না থাকায় সম্প্রতি প্রশাসন হাসপাতালটিকে বন্ধ করে দিয়েছিল, কিছুদিনের মধ্যেই আবার চালু হয়।

হবিগঞ্জের মাধবপুর -চুনারুঘাট সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মহসীন আল মুরাদ জানান, এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ নুরুল হকের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ওই হাসপাতালের অনুমোদন রয়েছে। তবে রোগীর মৃত্যুর ঘটনাটি উনার জানা নেই। প্রাইম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে একাধিক বার যোগাযোগের চেষ্টা করে তাদের কোন বক্তব্য পাওয়া যায় নি।