মডেল ও মিস ইউনিভার্স হারনাজ সান্ধু।


তরফ বার্তা প্রকাশের সময় : জুন ২৪, ২০২২, ৩:৪৯ অপরাহ্ন /
মডেল ও মিস ইউনিভার্স হারনাজ সান্ধু।

জটিল রোগে আক্রান্ত মডেল ও মিস ইউনিভার্স হারনাজ সান্ধু। সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে তথ্যটি জানিয়েছেন এই ভারতীয় সুন্দরী।

তৃতীয় ভারতীয় হিসেবে মিস ইউনিভার্স মুকুট জিতেছেন হারনাজ সান্ধু। কিন্তু মোটা হওয়া নিয়ে এখন নানা বিদ্রূপ শুনতে হচ্ছে তাকে। তার রোগ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি ওই সব মানুষদের একজন আগে চিকন হওয়া নিয়ে বিদ্রূপ শুনতাম, আর এখন তারা আমাকে মোটা হওয়া নিয়ে কথা বলে। কিন্তু কেউ-ই আমার সিলিয়াক রোগে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি জানেন না। এই কারণে অনেক কিছুই খেতে পারি না।’

জানা গেছে, সিলিয়াক একটি অটোইমিউন কন্ডিশন, যাতে মানুষের ইমিউন সিস্টেম তারই শরীরের বিরুদ্ধে কাজ করে। গ্লুটেন জাতীয় খাবারে এটি আরও সক্রিয় হয়ে ওঠে। এই কন্ডিশনের প্রভাবে অপুষ্টিজনিত সমস্যা, স্নায়ুর সমস্যা, হাড়ের সমস্যা হতে পারে। এতে ওজন কমে যেতেও পারে, আবার অত্যধিক বেড়ে যেতেও পারে। দীর্ঘ সময়ের জন্য হজমের সমস্যা হতে পারে।

পাঞ্জাবের চণ্ডীগড়ের মেয়ে হারনাজ সান্ধু পড়াশোনা করছেন চণ্ডীগড়ে। অনেকদিন থেকেই শোবিজ অঙ্গনে আছেন তিনি। ২০১৭ সালে তিনি মিস চণ্ডীগড় খেতাব জিতেছেন। ২০১৯ সালে জেতেন ‘মিস ইন্ডিয়া পাঞ্জাব’। হারনাজ জানান, নিজের ত্বক ও শরীর নিয়ে তিনি সব সময়ই আত্মবিশ্বাসী। তার ভাষায়, ‘আমি সেই সব সাহসী ও আত্মবিশ্বাসী মেয়েদের একজন, যারা মোটা হোক অথবা চিকন তবুও মনে করে— এটি আমার শরীর। আর আমি নিজেকে ভালোবাসি।’

২১ বছর আগে সর্বশেষ মিস ইউনিভার্স মুকুট পরেছিলেন ভারতের সুন্দরী লারা দত্ত। তার আগে ১৯৯৪ সালে প্রথম কোনো ভারতীয় নারী হিসেবে এই খেতাব অর্জন করেন সুস্মিতা সেন। গত ১২ ডিসেম্বর তৃতীয় ভারতীয় হিসেবে বিজয়ীর মুকুট মাথায় তোলেন হারনাজ। ইসরায়েলের এইলাতে অনুষ্ঠিত ৭০তম আসরে তাকে মুকুট পরিয়ে দেন তার পূর্বসূরি মেক্সিকোর আন্দ্রেয়া মেসা।